সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সুষমা স্বরাজের সাথে খালেদা জিয়ার বৈঠক

Susama Khaledaবিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ৩ দিনের সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের বৈঠক চলছে। আজ শুক্রবার সকাল পৌনে ১১টায় হোটেল সোনারগাঁওয়ে বেঙ্গলস্যুটের ৮২৪ নম্বর কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সোয়া ১০টায় এ বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও শেষ সময়ে তা পরিবর্তন করা হয়। এর আগে সকাল ৯টার দিকে ঢাকেশ্বরী মন্দির পরিদর্শন শেষে সুষমা স্বরাজ সোনারগাঁওয়ে এসে পৌঁছান। খালেদা জিয়া আসেন সকাল ১০টা ২৫ মিটিটে। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে খালেদার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা চেয়ারপারসন সিকিউরিটি ফোর্সের (সিএসএফ) সদস্যরা সোনারগাঁও হোটেল এলাকার নিরাপত্তার বিষয়ে নিশ্চিত হন। বৈঠকের বিষয়ে খালেদা জিয়ার প্রেসসচিব মারুফ কামাল খান সোহেল সাংবাদিকদের আগেই নিশ্চিত করেছিলেন।
বৈঠকে ভারতের পক্ষে পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিং, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আকবর উদ্দিন উপস্থিত রয়েছেন। অপরদিকে খালেদা জিয়ার সাথে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসরাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম, ড. আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী, উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান, সাবিহউদ্দিন আহমেদ, চেয়ারপারসনের প্রেসসচিব মারুফ কামাল খান সোহেল উপস্থিত রয়েছেন বলে জানা গেছে।
সুষমা স্বরাজের সঙ্গে সাক্ষাতের টকিং পয়েন্টসের একটি খসড়া ইতিমধ্যে চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে দলটির নীতিনির্ধারণী সূত্রে জানা গেছে। সব দলের আলোচনার মাধ্যমে দ্রুত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ব্যাপারে দিল্লির সহযোগিতা চেয়ে সুষমার মাধ্যমে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে একটি চিঠি দেয়ার কথাও রয়েছে খালেদা জিয়ার।
এদিকে সুষমা স্বরাজকে উপহার দেয়ার জন্য খালেদা জিয়া ৫টি জামদানি শাড়ি কিনে রেখেছেন বলে জানা গেছে। চেয়ারপারসনের ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, সুষমা স্বরাজের জন্য পাঁচটি জামদানি শাড়ি কিনে রেখেছেন খালেদা জিয়া। এছাড়া আরও বেশকিছু মূল্যবান উপহারসামগ্রী দেয়া হবে বেগম জিয়ার পক্ষ থেকে। ২০১৩ সালে ভারত সফরকালে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা সুষমা স্বরাজও বেগম জিয়াকে বেশ কিছু উপহার সামগ্রী দেন।
দলীয় সূত্র জানায়, সুষমার সঙ্গে বৈঠকে ৫ জানুয়ারির ভোটারবিহীন নির্বাচনকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়া হবে। সব দলের অংশগ্রহণে দ্রুত একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের প্রয়োজনীয়তার কথা জোর দিয়ে তুলে ধরবে বিএনপি। একই সাথে আগাম নির্বাচনের পক্ষে যুক্তি দেখিয়ে লিখিত একটি বক্তব্যও সুষমার হাতে তুলে দেয়া হবে। নির্বাচনের পূর্বাপর সময়ে দলটির নিহত ও গুম হওয়া নেতাকর্মীদের তালিকা উপস্থাপনসহ ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের ওপর তৈরি একটি ডকুমেন্টরিও হস্তান্তর করা হবে। এছাড়া খালেদা-সুষমা বৈঠকে সমমর্যাদার ভিত্তিতে দুই দেশের মধ্যকার অমীমাংসিত ইস্যুগুলো সমাধানে নরেন্দ্র মোদি সরকারকে পদক্ষেপ নেয়ারও আহ্বান জানানো হবে।
দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আসম হান্নান শাহ বলেন, ভারতের কাছে আমাদের দাবির কিছু নেই। দাবি হচ্ছে, গণমানুষের স্বার্থে তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা। আর এ সাক্ষাৎ কোনো দাবির বিষয় নয়, এটা শুধুই দু’জনের মতবিনিময়। তিনি বলেন, কংগ্রেসের প্রতি সেই দেশের মানুষের আস্থা ছিল না। তাই তারা ক্ষমতা হারিয়েছে। আমরা আশা করি, বিজেপি বাংলাদেশের সঙ্গে মুক্তধারায় চিন্তা করে সুসম্পর্ক বজায় রাখবে। আশা করি, সুষমা স্বরাজের এ সফরের পর ভারত প্রকৃত বন্ধুর মতো আচরণ করবে।
প্রসঙ্গত ৩ দিনের সরকারি সফরে গতকাল বুধবার রাতে ঢাকায় আসেন সুষমা স্বরাজ। সুষমা স্বরাজের সফরসঙ্গীদের মধ্যে পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিং, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সৈয়দ আকবরউদ্দীন, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বাংলাদেশ বিভাগের যুগ্ম সচিব শ্রীপ্রিয়া রঙ্গনাথন ছাড়াও মন্ত্রণালয়ের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা রয়েছেন। ভারতে সম্প্রতি বিজেপি সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর সুষমা স্বরাজের সফরটি বাংলাদেশে দিল্লির পক্ষ থেকে উচ্চ রাজনৈতিক পর্যায়ে প্রথম সফর।