শনিবার ২১ মে ২০২২ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

গণতন্ত্রের হুমকি মোকাবিলায় সতর্ক থাকতে হবে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ শুধু উন্নয়ন কর্মকাণ্ডকে ব্যাহত করে না, দেশের অখণ্ডতা ও শান্তি শৃঙ্খলার জন্য হুমকি সৃষ্টি করে। দেশের সংবিধান অনুযায়ী গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য সশস্ত্র বাহিনীকে যেকোনো হুমকি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকতে হবে।
রোববার কক্সবাজারের রামু ক্যান্টনমেন্টে সেনাবাহিনীর নবগঠিত ১০ পদাতিক ডিভিশনের পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
রামু উপজেলার কুনিয়াপালং, দক্ষিণ মিটাছড়ি ও রাজারকুল ইউনিয়নের ১৭৮০ একর জায়গা নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে সেনানিবাস ও সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন।
শেখ হাসিনা বলেন, নিকট অতীতে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসে এ অঞ্চলের উত্তপ্ত হওয়ার ইতিহাস আছে। এসব কথা মাথায় রেখেই দেশের দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চলে প্রতিষ্ঠিত হল সেনাবহিনীর নতুন এই পদাতিক ডিভিশন। বিশেষ করে এর মাধ্যমে দেশের নতুন সমুদ্রসীমায় বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সেনাবাহিনীর সামর্থ্য বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হলো।
সশস্ত্র বাহিনীর আধুনিকায়নে তার সরকারের প্রচেষ্টা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, দশম পদাতিক ডিভিশনের প্রতিষ্ঠা, সশস্ত্র বাহিনীকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করতে তার সরকারের প্রয়াসেরই একটি দৃষ্টান্ত।
এর আগে সকালে হেলিকপ্টারযোগে প্রধানমন্ত্রী রামুতে পৌঁছালে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া, ১০ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং মেজর জেনারেল আতাউর হালিম সরওয়ার হাসান তাকে স্বাগত জানান।
পরে প্রধানমন্ত্রী এ ডিভিশনের সেনা সদস্যদের অভিবাদন ও সালাম গ্রহণ করেন এবং পতাকা উত্তোলন করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ, গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, সাবেক সেনাপ্রধান মেজর জেনারেল শফিউল্লাহ, নৌবাহিনীর প্রধান ভাইস অ্যাডমিরাল এম ফরিদ হাবিব, বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল মো. এনামুল বারীসহ স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।
Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email