শনিবার ২ মার্চ ২০২৪ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সৈয়দপুরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান সমাপ্ত হলেও প্রশ্ন অনেক

মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ সম্প্রতি সৈয়দপুর রেলওয়ের জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান সমাপ্ত হলেও অজ্ঞাত কারণে ওইসময় রেলওয়ের জায়গার উপর নির্মিত বেশ কিছু বহুতল ভবন ভাঙ্গা হয়নি।

 

অবৈধভাবে গড়ে উঠলেও উচ্ছেদ অভিযান শেষেও যেসব স্থাপনা এখনও মাথা উচু করে দাড়িয়ে আছে সেগুলোর মধ্যে উলে­খযোগ্য হচ্ছে- শহীদ ডাঃ জিকরুল হক রোডে আলতাফ টাওয়ার, আজিমুদ্দিন হোটেল, নূর মার্কেট, আল-আরাফাহ হোটেল, সরকার এন্টারপ্রাইজ, কাপড় মার্কেট, মনিহারী মার্কেট, সামাদ মন্ডল মার্কেট, শের আলী ক্লথ স্টোর, মডার্ণ হোমিও মার্কেট। শের এ বাংলা রোডে (সিনেমা রোড) সৈয়দপুর ক্লাব, নূর মার্কেট (আলু ওয়ালা), থানার সামনে উপজেলা জাতীয় পার্টির অফিস, রেলওয়ে কল্যাণ ট্রাস্ট মার্কেট।

 

এদিকে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বাউন্ডারী ওয়াল ঘেষে গড়ে ওঠা সামসুল হক মেমোরিয়াল একাডেমী, কারখানাগামী রেললাইন ঘেষে স্থাপিত কল্যাণ ট্রাস্ট মার্কেট প্রভৃতি।

 

এসব মার্কেট বা স্থাপনাগুলো স্থানীয় বিভিন্ন রাজনৈতিকদলের নেতা ও প্রভাবশালী ব্যবসায়ীদের হওয়ায় অবৈধ সত্বেও টোকা পর্যন্ত দেয়া হয়নি। অথচ অসহায় গরীব মানুষের একমাত্র উপার্জনের মাধ্যম সহস্রাধিক কাচা-পাকা দোকানঘর উচ্ছেদ করা হয়।

 

এ নিয়ে সৈয়দপুরসহ উত্তরাঞ্চলের সর্বত্র রেলওয়ে প্রশাসনের দ্বিমুখী আচরণ ও টাকার বিনিময়ে অভিযানের নামে আইওয়াশ করা বিষয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় সরকারের ভাবমূর্তী সংকটে পড়েছে বলে মনে করছে সৈয়দপুরের সচেতন মহল। কেননা উচ্ছেদ অভিযান থেকে বাদ পড়া অবৈধ বহুতল ভবনগুলোর অধিকাংশই সরকার দলীয় নেতাদের নিজস্ব বা নিয়ন্ত্রণাধীন।

Spread the love