মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪ ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সৈয়দপুরে ট্রাফিক পয়েন্টে পণ্য পরিবহনে চাঁদাবাজির অভিযোগ

মো. জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি

হরতাল-অবরোধে সরকার যেখানে প্রশাসনের সহায়তায় যান চলাচল ও পণ্য নিশ্চিত করছে, সেখানে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর শহরের নিয়ামতপুর বাসটার্মিনাল এলাকার ট্রাফিক পয়েন্টে প্রশাসনের লেলিয়ে দেয়া এক চাঁদাবাজের দৌরান্তে ট্রাক, টেম্পু, পিকআপে নিত্য চাঁদা আদায়ের কারণে কাঁচামাল পরিবহনে মারাত্মভাবে বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে।

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জেলার গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসার শহর সৈয়দপুর। এ শহরের চারদিকে রংপুর জেলার প্রায় ১০টি উপজেলা ও দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও জেলার প্রায় ২০টি উপজেলার কাঁচামাল বিক্রয়ের গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসা কেন্দ্র। এসব উপজেলার সাধারণ কৃষক ও ক্ষুদে ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসার স্বার্থে উত্তরের কৃষিপণ্য সৈয়দপুরে বাজারজাত করে। এসব মালামাল ট্রাক, টেম্পু, পিকআপ ভ্যানে করে শহরে প্রবেশের সময় ট্রাফিক সার্জন ও কয়েকজন হাবিলদারের লেলিয়ে দেয়া ময়নুল নামের লোকের মাধ্যমে গাড়ী প্রতি ২শ থেকে ১শ টাকা হারে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করা হচ্ছে। কেউ দিতে অপারগতা জানালে তার পণ্যবাহী যান সাইড করে রাখা হতো। অনেকের গাড়ির হ্যান্ডেল খুলে রাখা হয়। এর ফলে চালক ও হেলপার ওই চাঁদাবাজদের সাথে প্রায়ই বাকবিতন্ডাসহ হাতাহাতি হতো।

 

এরই আলোকে গত বুধবার সকালে বাসটার্মিনাল এলাকার শুটকী ব্যবসায়ীর পণ্য পরিবহন আটকে দিয়ে জোরপূর্বক চাঁদা নেয়ার সময় শুটকী আড়তের শ্রমিক ও চাঁদাবাজ ময়নুলের মধ্যে বাকবিতন্ডা সৃষ্টি হয়। পরে এলাকাবাসীর সহায়তায় সাময়িক রক্ষা পেলেও তার চাঁদা আদায়ের স্বভাবের পরিবর্তন হয়নি। কেউ এর প্রতিবাদ করলে সে হুঙ্কার ছুড়ে বলে, কেউ আমার কিছু করতে পারবে না। প্রশাসন আমার পকেটে আছে। এ কারণে কোথাও অভিযোগ করে কোন লাভ হবে না।

Spread the love