বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

স্বাতকড়া ফল আবাদে সফল রবার্ট বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব

দিনাজপুর প্রতিনিধি: গাছটি দেখতে বাদাবী লেবু গাছের মত। ফলগুলো বাদাবী লেবুর মত। কমলা ফলের চেয়ে কিছুটা বড়। বাদাবী লেবুর মতই ফুল হয় এ গাছে। গাছে প্রচুর কাঁটা হয়। ফলটি টুকরো টুকরো করে মাছ মাংসের তরকারীতে দিলে সুস্বাদু হয় এবং তরকারী সুগন্ধি ছড়ায়। এছাড়া এই ফলের সুস্বাদু আচারও করা যায়। এতে প্রচুর ভিটামিন সি আছে। আর সবচেয়ে বড় গুণ হলো এ ফল শরীরের ক্লোরেস্টোল কমায় এবং মুখের রুচি বৃদ্ধি করে।

এরকম এক ফল স্বাতকড়া চাষ করছেন বিরলের এক মুক্তি যোদ্ধা মিঃ রবার্ট আর এন দাশ।

ফলটি আবাদের মাধ্যমে নিজের স্বাবলম্বী অর্জন ছাড়াও বৈদিশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব।

মিঃ রবার্ট আর এন দাশ জানান, ২০০৮ সালে সিলেট থেকে প্রথম স্বাতকরা ফলের চারা এনে রোপন করেন মুক্তিযোদ্ধা রবার্ট আর এন দাশ। নিজ বাড়ী বিরলের রাণীপুকুর ইউপির আছুটিয়া গ্রামে নিজস্ব বাগানে গাছটি লাগিয়েছেন। তবে এটা বৃহত পরিসরে আবাদ করার চেষ্ঠা করছি।

মিঃ রবার্ট আর এন দাশ বলেন, দিনাজপুরে আবাদ হচ্ছে সিলেটের ঐতিহ্যবাহী অর্থকরী ফল সাতকরা ফল। এই ফলটিকে আদাজামির বলেও পরিচিত। সিলেটবাসী এ ফল আবাদ করে ৮০০ টাকা হালি দরে বিক্রি করে।

এছাড়া এ ফল তারা বাণিজ্যিকভাবে লন্ডনে রপ্তানী করে প্রতি বছর প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করছে। দিনাজপুরে এ ফল আবাদ করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব।

তিনি বলেন, সরকার ও কৃষি বিভাগ এগিয়ে এলে দিনাজপুরের কৃষকরা স্বাতকড়া ফল আবাদ করে ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটাতে পারে।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email