শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ ২৯শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

স্বামী আলমের নির্যাতন : লাশ হলো রুবা

রবিউল এহসান রিপন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও শহরের মুন্সিপাড়া এলাকায় স্বামীর নির্যাতনে রুবা (৩৫) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

বুধবার বেলা ১২টার দিকে মুন্সিপাড়া এলাকা বাড়ির সেফ্টি ট্যাংক থেকে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

 

পরিবারের লোকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায, ঠাকুরগাঁও শহরের হঠাৎপাড়া রুবা (৩৫) এর সাথে মুন্সিপাড়ার দ্বিপহরুর ছেলে আলমের সাথে বিয়ে হয়।

 

বিয়ের পর থেকে যৌতুকের নির্যাতন স্বীকার হয় রুবা। নির্যাতনের কারণে কয়েকদিন আগে সে বাবার বাড়িতে চলে যায়। স্বামী আলম ৩ দিন আগে রুবাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। আবার চলে পাশবিক নির্যাতন।

 

অবশেষে আলম তার স্ত্রীকে মারপিট করে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। হত্যার পর বাড়ির সেফ্টি ট্যাংকের ভিতরে লাশ ফেলে চাপা দেয়। গত ২ দিন ধরে রুবার পরিবারের সাথে কোন যোগাযোগ না হলে পরিবারের সদস্যরা আলমের বাড়িতে আসে রক্তমাখা কাপড় দেখতে পায়। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ অনেক খোজাখোজির পরে বাড়ির সেফ্টি ট্যাংক থেকে রুবার লাশ উদ্ধার করে।

 

ঠাকুরগাঁও থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই গৃহবধূর শরীরে অনেক নির্যাতনের চিহ্ন পাওয়া গেছে। লাশ ময়না তদমেত্মর জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো জানান, নিহতের স্বামী আলমকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Spread the love