শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

হরিপুরে বাঁশ শিল্পের মাধ্যমে চলে অর্ধশতাধিক পরিবারের জীবন জীবিকা

কবিরুল ইসলাম কবির, হরিপুর (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি।। কেউ কাটছে বাঁশ, কেউ তুলছেন বাঁশের ফালি আবার পরিবারের অন্য সদস্যরা দলবেঁধে তৈরি করছেন কুটির শিল্পের বিভিন্ন ধরনের সামগ্রী। বাড়ির উঠানে ও রাস্তার পাশে দলবেধে তারা করছে কাজ৷ বিভিন্ন ধরনের সামগ্রী তৈরি হওয়ার পর উপজেলার বিভিন্ন বাজারে এসব বিক্রি করে যা আয় হয় তা দিয়ে চাল ডাল ক্রয় করে নিয়ে আসে।

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার ৪ নং ডাঙ্গীপাড়া ইউনিয়নের বনবাড়ী (পতনডোবা) গ্রামের অর্ধশতাধিক পরিবারের জীবিকা নির্বাহ চলে বাঁশ দিয়ে তৈরি করা কুটির শিল্প সামগ্রীর মাধ্যমে।

মৃত মধুসুদন চন্দ্রের ছেলে শ্যামল চন্দ্র (৩৮) জানান,২৫ বছর ধরে তিনি এ পেশায় জড়িত সারাদিন উৎসবের যে নারী পুরুষ তাদের নিপুন হাতের তৈরি করেন,কুলা, চাটাই, হাঁস মুরগির খাঁচা, চালুনি, ঢাকি,টুকরি, খালি ঘরের সিলিং,বিভিন্ন ধানের দরজা, দাড়ি, ডালা, খাদি ইত্যাদি৷

তিনি আরো জানায়, এটাই তাদের জীবিকা উপার্জনের অন্যতম পেশা৷ স্ত্রী সন্তানরা সবাই যৌথভাবেই বাঁশ শিল্পের কাজ করে৷ সেখান থেকে যা আয় হয় তাই দিয়ে কোনো রকম চলে তাদের সংসার৷ কখনো অর্ধহারে কখনো অনাহারে। স্থানীয় বাজার থেকে একটি বাঁশ কিনে আনি ২০০ টাকা দিয়ে৷ একটি বাঁশ থেকেই বিভিন্ন প্রকার জিনিসপত্র তৈরী করে বাজারে কিক্রি করলে ২০০ থেকে ২৫০ টাকা লাভ হয়৷ আমার বাড়ি ঘরের অবস্থাও অনেক খারাপ সরকারি কোনো সুযোগ সুবিধা পাইনি আমি৷ সরকারি ভাবে তেমন সাহায্য সহযোগিতা পাই না। আমাদের এই কুটির শিল্প বাচাতে সরকারের সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজন মনে করি।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email