বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

হাতীবান্ধায় প্রধান শিক্ষকের কক্ষে তালা লাগাল শিক্ষার্থীরা

আল হাসান সোহাগ,হাতীবান্ধা,লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার কেতকীবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে ঠিকমত কাস না হওয়া, শিক্ষকরা সময়মত উপস্থিত না হওয়ায় শনিবার সকালে শত শত শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের কক্ষে তালা ঝুলিয়ে কাস বর্জন করে মাঠে অবস্থান করে। পরে ঘটনাস্থলে বিদ্যালয় সভাপতি হাতীবান্ধা উপজেলা চেয়ারম্যান লিয়াকত হোসেন এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রয়ন করে শিক্ষার্থীদের নিয়মমত কাস হওয়ার আশ্বাস দিলে বিকেল ৪টার দিকে তারা কক্ষের তালা খুলে দেয় ।

 

দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সাগর, অন্যান্য দিনের মতো শনিবার সকাল সাড়ে ১১টা পেরিয়ে গেলেও বিদ্যালয়ে নেই কোন শিক্ষক। ফলে কাস ছেড়ে বাইরে বেরিয়ে আসে শত শত শিক্ষার্থী। শিক্ষকদের এমন অবহেলায় নিয়মিত কাস না নেয়ার প্রতিবাদে প্রধান শিক্ষকের অফিসে তালা লাগিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করি আমরা। পরে বেলা পৌনে ১২টার দিকে প্রধান শিক্ষকসহ মাত্র ৩ জন শিক্ষক বিদ্যালয়ে এসে পৌঁছলে ছাত্রছাত্রীদের তোপের মুখে পড়েন তাঁরা। এই অবস্থায় মাঠের মধ্যে দাঁড়িয়ে প্রায় ৪ ঘন্টা ব্যাপি অবস্থান ধর্মঘটন করে শিক্ষার্থীরা।

পরে বিকালে হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান লিয়াকত হোসেন বাচ্চু ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষকদের অনিয়মিত উপস্থিতি বন্ধসহ যথারীতি কাসের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয় বলে জানান ওই বিদ্যালয়ের ছাত্র।

ওই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্রী জান্নাতুল ফেরদৌসী এসময় অভিযোগ করে বলেন, কাসের মধ্যে তার ১ রোল। আগামীতে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে দশম শ্রেণীর প্রায় ৫২ জন শিক্ষার্থীকে। কিন্তু দিনের পর দিন থেকে বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা নিয়মিত কাস না নেয়ায় সকল শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীরা ক্ষতির শিকার হচ্ছে। বিদ্যালয়ে ১১ জন শিক্ষক রয়েছেন। এসব শিক্ষকদের অনেকেই বেলা ১২ টার দিকে স্কুলে এসে দু একটি ক্লাস নিয়ে নির্ধারিত সময়ের আগেই বাড়ি চলে যান।

এ ব্যাপারে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমানের দাবি, স্কুলে কিছুটা শিক্ষক সংকট থাকায় কাসের পাঠদানে কিছুটা সমস্যা ছিল। কিন্তু নতুন করে ৬ জন শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে দ্রুত সমস্যার সমাধানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

হাতীবান্ধা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তৈয়ব আলী জানান , ওই বিদ্যালয়ে নতুন করে শিক্ষক নিয়োগের বিষয়টি অব্যাহত আছে। কিন্তু শনিবার ছাত্রছাত্রীদের বিক্ষোভ সমাবেশ ও প্রধান শিক্ষকের কক্ষে তালা লাগানোর বিষয়টি আমি জানি না। তবে এনিয়ে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছে ঘটনাটি জেনে নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email