বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হিন্দু পরিবার নির্যাতন ও উচ্ছেদের ঘটনায় খালেদা জিয়ার প্রতিবাদ এবং ক্ষোভ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বরগুনার তালতলী উপজেলার চন্দনতলা গ্রামের ১৪টি হিন্দু পরিবারের ওপর নির্যাতন ও উচ্ছেদের ঘটনায় প্রতিবাদ এবং ক্ষোভ জানিয়েছেন ।

মঙ্গলবার বিকেলে বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীনের গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে  এ দাবি জানানো হয়।

তিনি বলেন, ‘স্থানীয় সন্ত্রাসীরা বর্বরোচিত এ ন্যক্কারজনক ঘটনার সঙ্গে জড়িত ও তাদের রাজনৈতিক পরিচয় ইতোমধ্যেই জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে। অবিলম্বে দোষী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘বরগুনা তালতলীর চন্দনতলা গ্রামের এ ঘৃণ্য ঘটনায় আমি প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ।’ঘটনায় উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন বিচার বিভাগীয় তদন্ত ও আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবি জানান তিনি।

এ ঘটনায় বিএনপির অঙ্গসংগঠন যুবদলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা জড়িয়ে সংবাদ পরিবেশন করা সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। বরগুনার ১৪ হিন্দু পরিবার উচ্ছেদের ঘটনা ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার অসৎ উদ্দেশ্যে দেশীয় দু-একটি পত্র-পত্রিকা এ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।

প্রতিবাদে বলা  হয়, যুবদলকে জড়িয়ে যারা মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করেছে তাদের কাছে বিএনপির প্রশ্ন— যেখানে বিএনপির নেতাকর্মীরা মিথ্যা মামলার কারণে গ্রেফতার আতঙ্কে ভুগছেন এবং গুম-খুনের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন, সেখানে কিভাবে তারা এ ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকতে পারে? বিএনপি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দলটিকে দেশে ও আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে হেয়প্রতিপন্ন করতে বিকৃত অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একই সঙ্গে দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’

Spread the love