বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১২ হাজার টাকা লুট শহরের রামনগরে সন্ধ্যায় সাইদুরের বাড়ীতে ডাকাতি

মোঃ বেলাল উদ্দিন ,স্টাফ রিপোর্টার ॥ গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দিনাজপুর শহরের রামনগর মদিনা মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় ডাকাতি সংঘটিত হয়। ৫/৬ জনের একটি ডাকাতদল সাইদুর রহমান এর বাড়িতে প্রবেশ করে তার পুত্র সাব্বির (১৩) এর মুখে স্পঞ্জ গুজে ও চোঁখে কালো কাপড় বেঁধে লিচু গাছের সঙ্গে হাত পা বেঁধে ঘরের আলমারী থেকে ১২হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়।
ঘটনা বিবরনে যানাযায় সাব্বিরের পিতা সাইদুর রহমান ও তার স্ত্রী সুফিয়া বেগম বাড়ীর নিকটে মানুনের মোড়ে অবস্থিত নিজের দোকান “সবুজ টেইলার্স” এ কর্মরত ছিলেন। তার প্রতিবন্ধী ভাই সবুজ রহমান তখন বাড়ীতে ছিলনা। মা সুফিয়া বেগম সন্ধ্যা ৭টায় বাড়ি ফিরে দেখেন যে, ভেতর থেকে গেট বন্ধ আছে। ডাকাডাকি করেও কোন সারাশব্দ না পেয়ে লোকজনের সহয়তায় গেট ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করেন। এসময় তার মা সুফিয়া বেগম ও অন্যান্যরা দেখেন যে, সাব্বিরের মুখে স্পঞ্জ ঢোকনো ছিল ও কালো কাপড় দিয়ে চোখ বাঁধা ছিল। তার হাত ও পা আঁটসাঁট করে লিচু গাছের সঙ্গে বাধা অবস্থায় অজ্ঞান হয়ে ছিল, এঅবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। মুরব্বী ছাউনি লাল ঘরের অন্যতম সদস্য ও গণেশ তলায় অবস্থিত লাইট হাউস এর সত্ত্বাধিকারী সাজ্জাদ আলী চুন্নু ঘটনার বিবরন জানিয়ে সন্ধ্যা ৭টা ১০ মিনিটে কোতয়ালী থানাকে অবগত  করেন। ১০ মিনিটের মধ্যেই ঘটনা স্থলে পুলিশের একটি দল উপস্থিত হয়ে ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন। ডাকাতরা সাব্বিরের বড় ভাই প্রতিবন্ধী সবুজ রহমানের প্রতিবন্ধী ভাতা এর জমানো ১২ হাজার টাকা নিয়ে যায় যা কোরবানীর ছাগল কেনার জন্য রাখা হয়েছিল। ডাকাতরা ঘরের আলমারী বাক্স ও আসবাবপত্র তছনছ করলেও নগদ টাকা ছাড়া অন্য কোন মূল্যবান দ্রব্য নিয়ে যায়নি বলে জানান, বাড়ীর মালিক সাইদুর রহমান। ডাকাত দলে ৫/৬জন ছিল বলে প্রত্যক্ষদর্শী সাব্বির জানান। সাব্বির ৮ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী।
এলাকাবাসীর অভিযোগ মদিনা মসজিদের পশ্চিম দিকের গলিতে যেখানে সাইদুর রহমানের বাড়ী সে রাস্তায় প্রায় ৪ মাস যাবত কোন বাতি নেই। ঘুটঘুটে অন্ধকারের মাধ্যে আশে পাশে নির্জন স্থানে প্রতিদিন বসে মাদক সেবী ও জুয়ারী এবং সন্ত্রাসীদের আড্ডা। যা সন্ধ্যার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলে।

Spread the love