মঙ্গলবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১১ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১৭ জেলায় প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল

১৫০১৯ জন তারুণ্যের একরাশ স্বপ্নপ্রশ্নপত্র ফাঁসের প্রমাণ পাওয়ায় ১৭ জেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা বাতিল এবং ৮ জেলার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করেছে প্রথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।
মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এস এম আশরাফুল ইসলাম বলেন, এসব জেলায় নতুন করে পরীক্ষা নেয়া হবে। আজ রবিবার তিনি এ সব কথা বলেন। তিনি আরও জানান, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সরকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষার ৭ সেট প্রশ্নের মধ্যে ‘হুয়াংহু’ ও ‘মেসিসিপি’ সেট ফাঁস হয়েছে বলে তদন্তে প্রমাণ পাওয়া গেছে। ঢাকা, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, শেরপুর, কক্সবাজার, লালমনিরহাট ও নারয়ণগঞ্জে হুয়াংহু সেটে পরীক্ষা হয়েছিল। আর মেসিসিপি সেটে পরীক্ষা হয় সাতক্ষীরা, পাবনা, ঝিনাইদহ, রাজবাড়ী, মেহেরপুর, খুলনা, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জে।
এসব জেলার পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে বলে সচিব জানান। প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায়  প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ তদন্ত করতে গত ১২ নভেম্বর একটি কমিটি গঠন করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ কমিটির তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ১৭ জেলার পরীক্ষা বাতিল করা হলো।
গত ৮ নভেম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণিতে সরকারী শিক্ষক নিয়োগে এক হাজার ৩৬২টি কেন্দ্রে লিখিত পরীক্ষা হয়। এতে ৯ লাখ ৬৮ হাজার ১২৭ জন অংশ নেন। পরীক্ষার আগের রাতে দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ উঠলে পুলিশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করে। বেশ কয়েকটি সেটের প্রশ্নে ওই পরীক্ষা নেয়া হয়।
প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণিতে প্রায় ৭ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগে গত ২ জুলাই বিজ্ঞপ্তি দেয় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। তৃতীয় প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচির (পিইডিপি-৩) আওতায় এ পরীক্ষার মাধ্যমে রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবান বাদে দেশের অন্য সব জেলা থেকে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে।

Spread the love