রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিক্ষকের স্বাক্ষর জাল করে পরীক্ষাকেন্দ্র পরিবর্তনের অভিযোগ!

হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার ৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষর জাল করে এসএসসির পরীক্ষাকেন্দ্র পরিবর্তন করার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ওই চার বিদ্যালয়ের চার প্রধান শিক্ষক শিক্ষামন্ত্রী, সচিব, স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, হাকিমপুর উপজেলার পাউশগাড়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ, নওপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নয়ানগর উচ্চ বিদ্যালয় ও ডাঙ্গাপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা হাকিমপুর উপজেলার বাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে আসছিল। কিন্তু হঠাৎ করেই তাদের কেন্দ্র পরিবর্তিত হয়ে পাশের বিরামপুর উপজেলার কাটলা উচ্চ বিদ্যালয় নতুন কেন্দ্র হয়। এতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা হতভম্ব হয়ে পড়েন। এদিকে হঠাৎ করে পরীক্ষাকেন্দ্র পরিবর্তন করায় ওই ৪টি বিদ্যালয়ের ১৫০ জন পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরাও পড়েছেন দুশ্চিন্তায়।

শিক্ষার্থীরা বলেন, বিরামপুর উপজেলার কাটলা উচ্চ বিদ্যালয় প্রত্যন্ত অঞ্চলে হওয়ায় যোগাযোগব্যবস্থা মোটেও ভালো না। আমরা শিক্ষার্থীরা যথাসময়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে উপস্থিত হতে পারি না। তাদের দাবি, হাকিমপুর উপজেলার বাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ পরীক্ষার কেন্দ্র হিসেবে দেওয়া হোক। 

হাকিমপুর উপজেলার পাউশগাড়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক সেলিম রেজা, নওপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রধানশিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম, নয়ানগর উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক আতিয়ার রহমান ও ডাঙ্গাপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা লায়লা আরজুমান জানান, মাধ্যমিক স্কুল সাটিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষাকেন্দ্র পরিবর্তনে আগ্রহী প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড দিনাজপুর বরাবর আবেদন করতে হবে। কিন্তু তারা কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন করেননি। এবার তাদের ৪টি স্কুল থেকে প্রায় ১৫০ জন ছাত্র-ছাত্রী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। বাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের প্রস্তুতি নিয়ে পাঠ কার্যক্রম চালিয়ে আসছেন। গত রবিবার (১৮ অক্টোবর) আমরা জানতে পারি এসএসসি পরীক্ষাকেন্দ্র হিসেবে আমাদের না জানিয়ে আকস্মিকভাবে বিরামপুর উপজেলার কাটলা উচ্চ বিদ্যালয়ে কেন্দ্রকে নির্ধারণ করা হয়েছে। কাটলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক নিজ স্বার্থসিদ্ধির জন্য আমাদের স্বাক্ষর জাল করে কেন্দ্র পরিবর্তনের এ জঘন্যতম কাজটি করেছেন। তারা কাটলা উচ্চবিদ্যালয়ে কেন্দ্র বাতিল করে নিজ উপজেলার বাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে বহাল রাখার দাবি জানিয়েছেন।

এদিকে, কাটলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। তিনি বলেন, বোর্ড কর্তৃপক্ষ স্কুলের কেন্দ্র পরিবর্তন করেছে। 

বাাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক গোলাম মোস্তফা জানান, পাউশগাড়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ, নওপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নয়ানগর উচ্চ বিদ্যালয় ও ডাঙ্গাপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীরা বাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে গত বছর পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে। এবার ওই বিদ্যালয়গুলোর নামের তালিকা শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ দেয়নি।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email